গাজীপুরে মুক্তিপণ না পেয়ে শিশু হত্যার অভিযোগ,২ যুবক আটক

গাজীপুর সদর

মাহমুদুল হাসান, গাজীপুর:

গাজীপুর সদর উপেজেলার বাঘের বাজার এলাকায় অপহরণের ৩ ঘন্টা পর মুক্তিপণ না পেয়ে শিশুকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে টয়লেটে লুকিয়ে রাখার অভিযোগ উঠেছে ২ যুবকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত মাহবুব আলম ও রাব্বি হোসেন নামে দুই গার্মেন্টসকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার বিকেলে পাঁচ বছর বয়সী শিশু শারমিন সুলতানার মরদেহ ওই দুই যুবকের ভাড়া বাসার টয়লেটের ভেতর থেকে উদ্ধার করা হয়। নিহত শিশু শারমিন স্থানীয় হোটেল ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীল আলমের মেয়ে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে জাহাঙ্গীর আলম বাঘের বাজার এলাকায় একটি হোটেল ব্যবসা করে আসছিল।শনিবার সকালে পাশের বাড়ির ভাড়াটে মাহবুব ও রাব্বি তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। মোবাইলে জাহাঙ্গীরের কাছে তারা ৩ লাখ টাকা ‍মুক্তিপণও দাবি করে। টাকা না পেয়ে শ্বাসরোধে শিশুটি হত্যার পর তাদের টয়লেটে লুকিয়ে রাখে।খোঁজাখুজির এক পযায়ে অভিযুক্তদের ভাড়া বাসার টয়লটে ওই শিশুর মরদেহ পায় এলাকাবাসি। পরে পুলিশ খবর পেয়ে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য শহীদ তাজ উদ্দীনআহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়। এ ঘটনায় জয়দেবপুর থানায় ওই দুইজনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন নিহতের বাবা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *